করোনাভাইরাস (Coronavirus) মহামারী বিশ্বব্যাপী কর্মক্ষেত্রে পরিবর্তন এনেছে। আর সেই কারণে রোবট (Robots) ৮৫ মিলিয়ন কর্মীর চাকরি ধ্বংস করবে, ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের (World Economic Forum) সমীক্ষায় এটাই উঠে এসেছে। সমীক্ষায় বলা হয়েছে, “করোনা মহামারীর কারণে ভবিষ্যতের কাজ এগিয়ে এসেছে, অর্থাত্‍ সময় কমে গেছে। তাই কমপক্ষে ৩০০টি বিশ্বব্যাপী সংস্থা কাজকে ডিজিটাল করার এবং নতুন প্রযুক্তি স্থাপনের পরিকল্পনা করছে। সমীক্ষায় বলা হয়েছে, কাজে বহাল থাকার জন্য কর্মীদের আগামী পাঁচ বছরে নতুন স্কিল শিখতে হবে।

ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের প্রতিবেদনটি এমন সময়ে এল যখন এমনিতেই ধুঁকছে চাকরির বাজার। ঘরে বসে কাজ করার পরেও করোনাভাইরাস মহামারীজনিত কারণে বিশ্বজুড়ে লাখ লাখ লোক কাজ হারাচ্ছেন। মার্কিন শ্রম বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, সে দেশে ক্রমেই বাড়ছে বেকারের সংখ্যা। আর তারা সরকারি সুবিধা পেতে আবেদন করছে। মহামারীর মধ্যে এই সংখ্যা ৫৩ হাজার বৃদ্ধি পেয়েছে।

ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম বলেছে যে সংস্থাগুলি ডেটা এন্ট্রি করার পরিবর্তে সংস্থাগুলি প্রযুক্তি ব্যবহার করায় নতুন চাকরি সৃষ্টি কমছে এবং চাকরি ধ্বংস দ্রুত হচ্ছে। তবে আশার আলো কিছুটা রয়েছে, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স-র (AI) মতো শিল্পে ৯৭ মিলিয়ন নুতুন চাকরি সূষ্টি হবে। রিপোর্টে বলা হয়েছে, “রোবটের তুলনায় মানুষ যে তুলনামূলক সুবিধা বজায় রাখতে প্রস্তুত রয়েছে সেগুলির মধ্যে পরিচালনা, পরামর্শ, সিদ্ধান্ত গ্রহণ, যুক্তি, যোগাযোগ এবং আলাপচারিতা অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।” সমীক্ষায় বলা হয়েছে যে, মাঝারি স্তরের কর্মচারীরা সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছেন। কারণ প্রযুক্তি ব্যবহার করে ৪৩ শতাংশ সংস্থা কর্মশক্তি হ্রাস করবে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]