নিউজ ডেস্ক, বিশেষ প্রতিবেদনঃ-  ৩২৮ টি জনপ্রিয় ফিক্সড ডোজ কম্বিনেশন (এফডিসি) ঔষধ নিষিদ্ধ করলো কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক

প্রতীকী চিত্র

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালে ফিক্সড ডোজ কম্বিনেশন (এফডিসি) অর্থাৎ দু’টি বা তিনটি ঔষধ নির্দিষ্ট অনুপাতে মিশিয়ে যে ঔষধ তৈরি হয় , সেই ধরনের ৩০০ টিরও বেশি ঔষধের ওপর নিষেধাক্কা জারি করেছিল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক । সেই সময় স্বাস্থ্যমন্ত্রক যুক্তি স্বরূপ বলেছিল, যেহুতু দুই বা তিনটি ওষুধ মিশিয়ে ফিক্সড ডোজ কম্বিনেশন ঔষধগুলি তৈরি হয় তাই অনেক রোগীর ক্ষেত্রেই রোগীর একটি ওষুধ দরকার হলেও অকারনে তাঁকে অন্য ওষুধ খেতে হয়, যার ফলে পরোক্ষ ভাবে শারীরিক ক্ষতির মুখোমুখি হন রোগীরা। কিন্তু কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সেই সময় মামলা করেছিলেন ঔষধ প্রস্তুতকারকেরা।

তারপর ঔষধ প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলির দাবী মেনে নিয়ে গঠন করা হয় এক বিশেষজ্ঞ কমিটি প্রায় ২ বছর পর সেই কমিটিও এই ধরণের ওযুধগুলি নিষিদ্ধ ঘোষণা করার পক্ষেই রায় দেয়। অগত্যা এই ওযুধ গুলিকে বাজার থেকে তুলে নেওয়া ছাড়া আরও কোনও রাস্তা খোলা থাকলো না ওযুধ প্রস্তুতকারকদের সামনে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের এই সিদ্ধান্তের ফলে বিভিন্ন কোম্পানিকে বাজার থেকে অন্তত ছয় হাজার’টি ব্র্যান্ডের ওষুধ তুলে নিতে হবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা, যার বাজারমূল্য আনুমানিক দুই থেকে তিন হাজার কোটি টাকা। অপরদিকে সরকারের এই সিদ্ধান্তকে অবশ্য স্বাগত জানিয়েছে অল ইন্ডিয়া ড্রাগ অ্যাকশন নেটওয়ার্ক নামের সংগঠন সেইসাথে তারা দাবী করেন বাজার থেকে নিষিদ্ধ হওয়া এই ৩২৮ টি ঔষধ শুধুমাত্র ট্রেলার এরকম ঔষধ বাজারে মুড়িমুড়কির মত ছড়িয়ে রয়েছে , সেইগুলিকেও চিহ্নিত করে অবিলম্বে বন্ধ করার দাবীও জানান তারা । 

যে যে ঔষধগুলি নিষিদ্ধ হল, তার মধ্যে অন্যতম হল পিরামলের স্যারিডন, অ্যালকেম ল্যাবরেটরি-র ট্যাক্সিম এ-জেড এবং ম্যাকলয়েড ফার্মার প্যানডার্ম প্লাস মলম এছাড়াও এই তালিকায় রয়েছে ডায়াবিটিসের ওষুধ গ্লুকোনর্ম পিজি, অ্যান্টিবায়োটিক লুপিডিকলক্স-এর মতন জনপ্রিয় ঔষধগুলি । 

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]