গত ১১ দিনে সুস্থ হয়েছেন ১০ লক্ষেরও বেশি মানুষ। সুখবর শোলান কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। সোমবার ভারতের মোট সুস্থ হওয়া রোগীর সংখ্যা ছাড়াল ৫০ লক্ষের ঘর, যা রীতিমত সাফল্য বলেই মনে করছে কেন্দ্র।

এদিন একাধিক ট্যুইট করে বেশ কিছু তথ্য তুলে দেয় কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক। মন্ত্রক জানায়, সুস্থ হওয়া রোগীর সংখ্যা, দেশের মোট অ্যাক্টিভ কেসের তুলনায় পাঁচ গুণেরও বেশি। জুন মাসের ২০ তারিখে যে খা

এদিকে, দেশে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। শেষ ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত হলেন ৮২ হাজার ১৭০ জন। এই সময়ের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১০৩৯ জনের। নতুন করে সংক্রমণ ও মৃত্যুর জেরে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬০ লক্ষ ৭৪ হাজার ৭০৩ জন।

এরমধ্যে অ্যাক্টিভ কেস রয়েছে ৯ লক্ষ ৬২ হাজার ৬৪০। সুস্থ হয়ে উঠেছে ৫০ লক্ষেরও বেশি মানুষ। দেশজুড়ে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৯৫ হাজার ৫৪২ জনের।

অন্যদিকে স্বাস্থ্যমন্ত্রক সূত্রে খবর, দেশের মাত্র ১০টি রাজ্যে ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলে ছড়িয়ে রয়েছে মোটা করোনা আক্রান্তের ৭৫ শতাংশ রোগী। বাকি ২৫ শতাংশ ছড়িয়ে দেশের বাকি রাজ্যে। জানা গিয়েছে যে বা যাঁরা করোনার ভ্যাকসিন কেনার ক্ষমতা রাখেন না, তাঁদের কেন্দ্র বিনামূল্যে এই ভ্যাকসিন দেবে। এক উচ্চপদস্থ সরকারি আধিকারিককে উদ্ধৃত করে এই তথ্য দিয়েছে দ্য হিন্দু।

এক একটি ভ্যাকসিনের দাম পড়বে ২-৩ ডলার বা ১৪০ থেকে ২১০টাকার মধ্যে। সেই অর্থ দিয়ে যারা ভ্যাকসিন কিনতে সক্ষম নন, তাঁদের সরকারের পক্ষ থেকে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। সরকারি সূত্র জানাচ্ছে ১৩০ কোটির জনসংখ্যার দেশে ভ্যাকসিনেশনের জন্য প্রচুর অর্থ প্রয়োজন। অনেকেই তা কিনে উঠতে পারবেন না। তাঁদের বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেবে সরকার।

নে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা ছিল মাত্র ১ লক্ষ, সেখানে সেপ্টেম্বরের শেষে ৫০ লক্ষের বেশি আরোগ্যের সংখ্যা। মন্ত্রক সূত্র খবর, প্রতিদিন এখন ৯০ হাজারেরও বেশি মানুষ সুস্থ হয়ে উঠছেন।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]