নিউজ ডেস্ক নয়াদল্লি ঃ-

গান্ধীনগর, ২৯ মার্চ প্রথমবার লোকসভা নির্বাচনে লড়াইয়ে নামার আগেই জোর ধাক্কা খেলেন সদ্য কংগ্রেসে যোগ দেওয়া পতিদার আন্দোলনের নেতা হার্দিক প্যাটেলের। এতে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে গুজরাট হাইকোর্টের একটি রায়। গুজরাটে পতিদার আন্দোলনের মুখ হার্দিক প্যাটেল ইতিমধ্যেই রাজ্যে তো বটেই রাজ্যের বাইরে কানহাইয়া কুমারের হয়েও প্রচারে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। এর মধ্যে ২৯ মার্চ গুরুত্বপূর্ণ রায় দিল গুজরাট হাইকোর্ট। ২০১৫ সালে মেহসেনার একটি সংঘর্ষের ঘটনায় নিম্ন আদালতে দোষী সাব্যস্ত হন হার্দিক প্যাটেল। সেই রায়ের বিরুদ্ধে স্থগিতাদেশ চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেন হার্দিক। ২৯ মার্চ সেই আবেদন খারিজ করে দিয়েছে আদালত। ফলে ১৯৫১ সালের জন প্রতিনিধিত্ব আইন অনুযায়ী দোষী সাব্যস্ত হওয়ার কারণে তিনি আর ভোটে লড়াই করতে পারবেন না। হাইকোর্টের বিচারপতি উরাইজি বলেন, ১৭টি এফআইআর রয়েছে হার্দিকের বিরুদ্ধে। এনিয়ে এখনও কোনও পদক্ষেপ করেনি আদালত। উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে সংরক্ষণের দাবিতে আন্দোলনের সময় বিসনাগরে একটি হাঙ্গামায় জড়িয়ে পড়ে হার্দিক প্যাটেলের সংগঠন। সেই ঘটনায় হার্দিকের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। ওই মামলায় ২০১৮ সালে হার্দিক প্যাটেলকে ২ বছর কারাদন্ডের সাজা দেয় আাদালত।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]