নিউজ ডেস্ক, অভিষেক চক্রবর্তী, পশ্চিম মেদিনীপুরঃ– অনেক আগেই মর্যাদা পেয়েছে হেরিটেজ স্কুলের। কিন্তু সেই স্কুল এখন ছাত্র সহ শিক্ষকদের কাছে বড় মৃত্যু ফাঁদ। ঘটে যেতে পারে বড়ো দুর্ঘটনা।

মেদিনীপুর টাউন স্কুল। এই স্কুলটি অবিভক্ত মেদিনীপুর জেলার অন্যতম প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী স্কুল। স্কুল টির জন্ম ১৮৮৩ সালে। তৎকালীন ইংরেজ আমলে এই স্কুলে পড়া কালীন শহিদ হন ৪ জন ছাত্র ।

এই ঐতিহ্যবাহি স্কুল মেদিনীপুর শহরে অবস্থিত। স্কুলটি আজ বয়সের ভারে ভারাক্রান্ত। কিন্তু আজ ওই স্কুল টির দিকে নজর পড়ে না কোনো আমলা থেকে জনপ্রতিনিধির। স্কুলটি আজ ধংসের কিনারায় দাঁড়িয়ে। কোথাও ধরেছে ফাটল, ছাদ ফুটো হয়ে পড়ছে জল। এর জেরে কার্যত আতঙ্কিত স্কুলের শিক্ষক,শিক্ষিকা সহ ছাত্র রা।

স্কুলের প্রধান শিক্ষক বিবেকানন্দ চক্রবর্তী বলেন, ২০১০ সালে হেরিটেজ কমিশন থেকে এই স্কুলটিকে হেরিটেজ বলে ঘোষণা করা হয়েছিল। কিন্তু সেই হেরিটেজ স্কুল এখন সবার মৃত্যু ফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এর পাশাপাশি উনি বলেন যত রকম ভাবে সাহায্য চাওয়া হয়, সব রকম ভাবেই চেয়েছি, কিন্তু কেউ এই স্কুল টির দিকে তাকায়নি, তার জেরে যেকোনো মুহূর্তে ঘটতে পারে বড় দূর্ঘটনা। যেখানে ছাত্র রা পড়াশোনা করে, এবং স্কুলের যেটি প্রশাসনিক ভবন, সেই দুটি ভবনের ছাদ যেকোনো সময় ভেঙে পড়বে। উনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অনেক প্রকল্প নিয়ে থাকেন উন্নয়নের জন্য, যদি মুখ্যমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষন করা যায়, তাহলে ভবন গুলো নতুন ভাবে গড়ে তুলবেন।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]