নিউজ ডেস্ক,নয়াদিল্লীঃ-

পাঁচ রাজ্যে হওয়া বিধানসভা নির্বাচনের পর কংগ্রেস একটু প্রাণ ফিরে পেয়েছে।তিন রাজ্যে কংগ্রেসে সরকার গড়তে সক্ষম হয়েছে।ছত্রিশগড়,রাজস্থান এবং মধ্যপ্রদেশে কংগ্রেস সরকার গঠন করার ফলে  কংগ্রেসের কার্যকর্তারা বেশ উল্লাসিত।অপরদিকে তেলেঙ্গানায় ও মিজোরামে টিআরএস এবং মিজো ন্যাশনাল ফ্রন্ট পার্টি সরকার গঠন করেছে। এই নির্বাচনের পর কংগ্রেস নেতারা খুশি হয়েছিল। এমনকি কেজরিওয়াল,মমতা,মায়াবতী,শারদ যাদব,অখিলেশের মতো নেতারা ২০১৯ লোকসভা ভোটে বিজেপিকে হারানোর সপ্নও দেখতে শুরু করেছে । কংগ্রেসের যুবরাজ রাহুল গান্ধী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন।

সোনিয়া তনয় রাহুল কে প্রধানমন্ত্রীর মসনদে বসানোর জন্য সমস্থ শক্তি দিয়ে প্রচার কাজ শুরু করেছে কংগ্রেস। কিন্তু এরই মধ্যে কংগ্রেরসের জন্য একটা দুঃসংবাদ সামনে আসে,যা কংগ্রেসীদের উৎসাহে ভাঁটা পড়ার মত যথেষ্ট।বিগত পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনে বি জে পি র হারের পর কংগ্রেস তাদের রাস্তা খুব পরিষ্কার বলে ভেবে নিয়েছিল, কিন্তু এরইমধ্যে হরিয়ানা পৌরসভা নির্বাচনের ফল কংগ্রেসের আনন্দ ম্লান করে দিয়েছে।হরিয়ানার পাঁচটি পুরনিগম নির্বাচনে কংগ্রেস ধূয়েমুছে সাফ হয়ে গেছে।কংগ্রেসের প্রার্থী থেকে বিজেপি প্রার্থীদের জয়ের ব্যবধান এত বেশী ছিল যে পুরনিগম নির্বাচনে কংগ্রেসে অস্তিত্বের সংকটে যায়। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা হরিয়ানার এই নির্বাচনকে ২০১৯ লোকসভার সেমিফাইনাল বলেও আখ্যা দিয়েছেন।রাজনৈতিক মহল এই নির্বাচনের জয়কে বিজেপির পুনরায় ক্ষমতায় ফিরে আসার ইঙ্গিত বলেও মনে করছে।কার্নাল,হিসার,পানিপথ,রোহাতাক,এবং যমুনানগর এই পাঁচটি পৌরসভায় বিজেপি বিরাট জয় পেয়েছে।হিসার থেকে গৌতম সারদান ৬৮,১৯৬ ভোট পেয়েছেন,কার্নাল থেকে রেনু বালা ৬৯,৯৬০ ভোট পেয়েছেন,পানিপথ থেকে অভিনীত কৌর ১,২৬,৩২১ ভোট পেয়েছেন,যমুনানগর থেকে মদন সিং চৌহান ৯১,৬৪২ ভোটে জয়লাভ করেছে। বিজেপির এই বড় জয় একদিকে যেমন বিজেপি কর্মীদের উৎসাহ প্রদান করবে তেমনি মনোবল বাড়াবে, অপরদিকে এই ফলাফলে কংগ্রেসের অন্দরে সৃষ্টি হয়েছে ক্ষোভের।  

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]