শুক্রবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহের নেতৃত্বাধীন উচ্চ পর্যায়ের কমিটি ঘোষণা করল, এই বছরে ঘূর্ণিঝড়, বন্যা ও ভূমিধসবিদ্ধস্ত ৬টি রাজ্যকে অতিরিক্ত ৪৩৮২.৮৮ কোটি টাকার সহায়তা দেবে কেন্দ্র।

মে মাসে আমফান বিদ্ধস্ত বাংলা ও ওড়িশা এনডিআরএফ-এর অধীনে যথাক্রমে ২৭০৭.৭৭ কোটি ও ১২৮.২৩ কোটি টাকার অতিরিক্ত সহায়তা পাবে।

এই ঘূর্ণিঝড়ে বাংলায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছিল। মৃত্যু হয়েছিল প্রায় ১০০ জনের। আমফান আছড়ে পড়ার আগে বাংলায় ৫ লাথ মানুষকে ও ওড়িশায় ১৫৮০০০ মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

২০ মে বিকেলে সুন্দরবনে সাগর দ্বীপের ২০ কিমি পূর্বে জমিতে আছড়ে পড়ে ঘূর্ণিঝড়। ঝড়ের সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১৮৫ কিমি। রাস্তাঘাট ও টেলিযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে, বাংলার অনেক অঞ্চল বিদ্যুত্‍বিহীন হয়ে পড়ে।

আমফান বিদ্ধস্ত রাজ্যগুলিতে যাওয়ার একদিন পরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ২৩শে মে বাংলার জন্য ১০০০ কোটি টাকা ও ওড়িশার জন্য ৫০০ কোটি টাকা সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা করেন। তাত্‍ক্ষণিক ত্রাণের কাজের জন্য এই সহায়তা দেওয়া হয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী মৃতদের পরিবারের জন্য ২ লাখ টাকা ও আহতদের জন্য ৫০০০০ টাকা দেওয়ার কথাও ঘোষণা করেছিলেন।

কেন্দ্র জুনে ঘূর্ণিঝড় নিসর্গের কবলে পড়া মহারাষ্ট্রকেও ২৬৮.৫৯ কোটি টাকার ত্রাণ সহায়তা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]