ফের গণধর্ষণের সাক্ষী থাকল দেশের রাজধানী। এবার এক রোগীর আত্মীয়াকে দিল্লির হাসপাতাল চত্বরেই গণধর্ষণ করল নিরাপত্তা কর্মীরা। নির্যাতিতার অভিযোগের ভিত্তিতে মঙ্গলবার তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে দিল্লির রোহিনী এলাকার পুলিশ।

নির্যাতিতার এক আত্মীয় রোহিনী এলাকার বাবা সাহেব ভীমরাও আম্বেদকর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। ৩০ অক্টোবর রাতে সেই আত্মীয়কে দেখতে হাসপাতালে এসেছিলেন তিনি। এরপর রাতে হাসপাতালেই থেকে যান ওই বছর তিরিশের মহিলা। রাত ১২টা নাগাদ হাসপাতালের নিরাপত্তাকর্মী ও দুই বাউন্সার এসে আচমকাই তাঁর উপর চড়াও হয়। মহিলার পরিচয় জানতে চায় তারা। তিনি কেন ওই বিল্ডিংয়ে রয়েছেন তাও জানতে চাওয়া হয়।

পুলিশকে অভিযোগকারীনি জানিয়েছেন, ভেরিফিকেশনের অজুহাতে তাঁকে হাসপাতালের পার্কিং লট চত্বরে নিয়ে যাওয়া হয়। তারপর সেখানেই তাঁর উপর নারকীয় শারীরিক অত্যাচার করা হয়। ঘটনা সম্পর্কে কাউকে কিছু জানালে জানে মেরে ফেলারও হুমকি তারা দিয়েছিল বলে পুলিশকে জানিয়েছেন নির্যাতিতা।

অভিযোগ পেয়ে মঙ্গলবার তিন অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে। ধৃতদের মধ্যে একজন বাবা সাহেব ভীমরাও আম্বেদকর হাসপাতালের নিরাপত্তা কর্মী। বাকি দুজন ওই হাসপাতালেরই প্রাক্তন বাউন্সার বলে জানিয়েছে পুলিশ। ধৃতদের নাম মণীশ (‌২২)‌, প্রবীণ তিওয়ারি (‌২৪)‌ ও কানওয়ার পাল (‌৩৩)‌।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]