ঊনকোটি জেলার কুমারঘাটে একদল ছিনতাইবাজ বেশ কিছুদিন ধরে কুমারঘাট থানা এলাকায় দিনে দুপুরে চলিয়ে যাচ্ছে ছিনতাই কাণ্ড।এই ছিনতাইবাজদের শিকার হচ্ছেন এলাকার মহিলারা।
এরা কুমারঘাট শহরে যাত্রী অটো থামিয়ে মহিলাদের গন্তব্যস্থলে পৌছে দেবার নাম করে অটোতে তুলে কিছুদুর গিয়ে তাদের একটি কাগজ পড়তে দেয় এবং এই কাগজ পড়ে মহিলারা কিছুক্ষনের জন্য বেহুশ হয়ে পড়েন তখনই তাদের শরিরে থাকা স্বর্ণালঙ্কার এবং টাকা নিয়ে নিচ্ছে ঐ ছিনতাইবাজের চক্রটি।জ্ঞান ফিরলে গন্তব্যস্থলে নামিয়ে দিয়ে পালিয়ে যাচ্ছে ওরা।
গত কিছুদিন আগে এই ছিনতাইবাজদের কবলে পড়ে ১৫০০ টাকা খুয়িছেন কুমারঘাটের সায়দারপাড়ের বীনাপানি দে নামে এক মহিলা।শুক্রবার একই ঘটনার পূনরাবৃত্তি ঘটল কুমারঘাটে।এবার এদের কবলে পড়ে কুমারঘাট রাইতুইসা স্কুলের শিক্ষিকা ভারতী নাথকে প্রায় ৩ ভরি স্বর্ন এবং নগদ ৪০০ টাকা খুয়াতে হয়েছে।
জানা গেছে কুমারঘাটের বেতছরা রাইতুইষা স্কুলের শিক্ষিকা ভারতী নাথ প্রতিদিনকার মতো গতকাল অর্থাৎ শুক্রবার সকালে স্কুলে যাবার উদ্দেশ্যে দাড়িয়ে ছিলেন বাড়ীর সামনে।হটাৎই একটি অটো এসে উনাকে উনার গন্তব্যস্থলে পৌছে দেবার নাম করে অটোতে তুলে এবং কিছু দূর যাবার পর গাড়ীতে থাকা যাত্রী পরিচয়ধারী এক যুবক একটি কাগজ পড়তে দেয় মহিলাকে এবং তিনি সেটি পড়ার পর আর কিছুই বলতে পারেননি এরপরই উনার শরিরে থাকা সব স্বর্ণালঙ্কার এবং কিছু টাকা হাতিয়ে নিয়ে চম্পট দেয় ঐ ছিনতাইবাজ চক্রটি।তিনি বিদ্যালয়ে পৌছলে হটাৎই উনার ঘুম ভাঙে এবং সমস্ত বিষয়ে অবগত করেন বিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষক শিক্ষিকাদের।

ঐ শিক্ষিকা জানান তিনি গাড়ীতে চড়ার আগে গাড়ীতে চালক সহ মোট তিনজন ছিল। এবিষয়ে ঐ মহিলার তরফে কুমারঘাট থানায় একটি অভিযোগ জানানো হয়েছে।কুমারঘাটে এইধরনের ঘটনা ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে কিন্তু তবুও এইধরনের ছিনতাইবাজদের ধরতে পুলিশ কোন পদক্ষেপ গ্রহন করছে না।দাবি উঠছে এই ধরনের ছিনতাইবাজদের বিরুদ্ধে অবিলম্বে কার্যকরি পদক্ষেপ গ্রহন করুক কুমারঘাটের রাষ্ট্রপতি কালার্সপ্রাপ্ত পুলিশবাবুরা নইলে আরও অনেক মহিলাকেই এদের খপ্পরে পড়ে সর্বস্ব খোয়াতে হতে পারে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]