নিউজ ডেস্ক, ধর্মনগরঃ- পুলিশের হাতে ধরা পড়লো অস্ত্র পাচারকারী

পুলিশের হাতে ধরা পড়লো অস্ত্র পাচারকারী। ভোট গণণার আগের দিনের গভীর রাতে ধর্মনগরের প্রাণকেন্দ্রের একটি হোটেল থেকে অস্ত্র সহ পাচার কারীকে গ্রেপ্তার করলো পুলিশ। ঘটনার বিবরণে জানা যায়, জেলা পুলিশ সুপার ভানুপদ চক্রবর্তীর কাছে গোপন সুত্রে খবর আসে যে, পিস্তল সহ এক ব্যক্তি ধর্মনগর শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থান করছে। ম্যসেজ ফরোয়ার্ড করার পর এসডিপিও জোতিষমান দাস ও ধর্মনগর থানার ওসি বেণী মাধব দে মিলে বিশাল পুলিশ ও টিএস আর বাহিনী নিয়ে ধর্মনগরের অফিসটিলা স্থিত হোটেল গেস্টহাউসে হানা দেন। এই গেস্টহাউসের রুম নাম্বার ৬ থাকা ব্যক্তি প্রণজিৎ দাস (৩৮) পিতা – বিনোদ দাস বাড়ি মধুপুর কমলাসাগর থানা। তার কাছ থেকে অত্যাধুনিক ফেক্টরিমেইড ৩ টি পিস্তল ৬ টা ম্যগজিন ও ২৫ রাউন্ড গুলি পাওয়া জায়। রাত আনুমানিক ২ ঘটিকা নাগাদ প্রণজিৎ কে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়। 

পুলিশের সন্দেহ সে আসাম থেকে এগুলি নিয়ে এসেছে। হয়ত বা ট্রেনে করে ধর্মনগর এসে রাত্রি জাপন করে ভোর বেলা আগরতলা পাড়ি দিতে চেয়েছিলো নতুবা বুধবার সকালে ভোট গগণা সেখানে কোন ধরণের সন্ত্রাস কায়েমের লক্ষ্য ছিলো। পুলিশ ধৃত প্রণজিৎ কে জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে। এতো অত্যাধুনিক অটোমেটিক ফেক্টরীমেইট পিস্তল সে কোথা থেকে আনলো। রাজ্যে খুন সন্ত্রাস কায়েম করার জন্য কারা অবৈধ ভাবে অগ্নেয়াস্ত্র আনাচ্ছে। এদের নেটওয়ার্ক কে পুরো গোঁড়া থেকে উপড়ে আনুক পুলিশ। কিছু দিন আগে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবকে হত্যার পরিকল্পনা হয়। রাজ্যে এভাবে আগ্নেয়াস্ত্র ডুকতে থাকলে পাচারকারী দের ধরতে না পারলে এরা যে কোন ঘটনা ঘটিয়ে রাজ্যের বুকে অশান্তি বাধাতে পারে। এ বিষয়ে পুলিশ কে সজাগ থাকতে হবে। অবশ্য উওর জেলার পুলিশ যেটা করে দেখিয়েছে তা প্রশংসার যোগ্য।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]