নিউজ ডেস্ক , পশ্চিমবঙ্গ ঃ –  অরাজনৈতিক সংগঠন  UUPTWA এর নেতৃত্বে যোগ্যতা অনুসারে বেতন বৃদ্ধির আন্দোলন করায় শিক্ষক নবীন হাওলাদারকে বদলি করল নদীয়া জেলা প্রাথমিক স্কুল সাংসদ । 

নাম নবীন হাওলাদার , পেশা প্রাথমিক শিক্ষক,  অপরাধ যোগ্যতা অনুসারে বেতন বৃদ্ধির দাবীতে আন্দোলন করা । আর সেই অপরাধে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের রোষের মুখে পড়তে হল শিক্ষক নবীন হাওলাদারকে । ১ সপ্তাহের মধ্যে ২ বার , ৫ মাসে ৩ বার বদলি করা হল তাকে ।

প্রসঙ্গত জানা যায়, নিজেদের প্রাপ্য টাকা চেয়ে আন্দোলন করছে উস্তি  ইউনাইটেড প্রাইমারী ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন , আর আন্দোলনকারীদের দমিয়ে রাখার জন্য নানান  পন্থা নিয়েছেন মমতা ব্যানার্জীর সরকার। উল্লেখ্য উচ্চমাধ্যমিক ও ২ বছরের ডিএলএড যোগ্যাতায় রিক্রুট হয় কিন্ত সারা ভারতের পে স্কেল- ৯৩০০-৩৪৮০০ ও জিপি-৪২০০( 6th cpc অনুসারে) পশ্চিম বঙ্গের ক্ষেত্রে তা ৫৪০০-২৫২০০ ও জিপি-২৬০০.. কেন্দ্রীয় সরকারের সপ্তম বেতন কমিশন লাগু হওয়ার পর বেতন বৈষম্যের পরিমান প্রায়-২০০০০ টাকার মত।পশ্চিম বঙ্গে এখনো পঞ্চম বেতন কমিশন চলছে ।

 সেই কারনে বহুদিন ধরে আন্দোলন করছে UUPTWA । এই নিয়ে ইতিমধ্যে কলকাতায় বিক্ষোভ সমাবেশ ও মুখ্যমন্ত্রী এবং রাজ্যপালের কাছেও ইতিমধ্যে স্মারকলিপি জমা দিয়েছে UUPTWA । আর এই আন্দোলনের ফলে সমস্যার সমাধান তো দুরের কথা , উল্টে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের রোষের মুখে পড়তে হচ্ছে আন্দোলনরত শিক্ষকদের । কখনও হুমকি তো কখনও বদলি , এইভাবেই দিন কাছে তাদের ।

গত ২৮শে জুন কৃষ্ণনগরের নদীয়া জেলা প্রাথমিক স্কুল সাংসদের কার্যালয়ে স্মারকলিপি প্রদান করে উস্তি  ইউনাইটেড প্রাইমারী ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন , সেখানে হাজির ছিলেন রানাঘাট হুমানিয়াপোতা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নবীন হাওলাদার এরপর গত ৩০শে জুলাই তাকে নেতাজি সেবা সিংহ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বদলি করা হয় ।  একসপ্তাহের মাথায় গত ৭ই আগস্ট পুরায় তাকে  হুমানিয়াপোতা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বদলি করে জেলা প্রাথমিক স্কুল সাংসদ ।

এবিষয়ে  শিক্ষক নবীন হাওলাদার অভিযোগ করেন , রাজ্য সরকারের বিরোধিতা তিনি কখনও করেনি , শুধু একাংশ প্রাথমিক শিক্ষকদের সাথে করা বেতন বৈষম্যের প্রতিবাদে একটি কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ  করেছেন কেবল , আর সেই অপরাধেই শাসক দলের কিছু নেতারা তার ছবি দেখিয়ে সরকার বিরোধী প্রমান করতে চাইছে । তাই তাকে ঘন ঘন বদলি করা হচ্ছে ।

এব্যাপারে জেলা প্রাথমিক স্কুল সাংসদের  চেয়ারম্যান রমাপ্রসাদ রায়  বেতন বৈষম্যে  কর্মসূচি  প্রসঙ্গ এড়িয়ে গিয়ে বলেন নবীন হাওলাদারের বিরুদ্ধে বারবার ক্লাস চলাকালীন ফেসবুক করা সহ আরও নানান আচরণগত অভিযোগ থাকার ফলে তাকে বদলি করা হয়েছে ।

যদিও  চেয়ারম্যান রমাপ্রসাদ রায়ের করা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন নবীন বাবু । তিনি বলেন তাকে সম্পূর্ণ রাজনীতির শিকার হতে হচ্ছে সেইসাথে UUPTWA এর কার্যকারী সমিতির সদস্য মইদুল ইসলামের বক্তব্য কেও যদি নিজেদের ন্যায্য পাওনার দাবীতে আন্দোলন করে , পথে নামে তবেই তার গায়ে সরকার বিরধীতার ছাপ মেরে দেওয়া হয় ,  নবীনের ক্ষেত্রেও একই ঘটনা ঘটেছে , নোংরা রাজনীতির শিকার সে ।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]