প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে চিঠি লিখে সারা দেশে বাজি তৈরি ও মজুত করা, কেনাবেচা-সহ সমস্ত প্রক্রিয়া বন্ধের জন্য বাড়তি দায়িত্ব নেওয়ার আবেদন জানালেন পরিবেশকর্মী সুভাষ দত্ত। একই সঙ্গে রাজ্যে বাজি বিক্রি ও পোড়ানোয় নিষেধাজ্ঞা জারির দাবিতে মামলা দায়ের হয়েছে কলকাতা হাই কোর্টে।

মহামারী পরিস্থিতিতে আতশবাজির ধোঁয়া কতটা মারাত্মক পরিস্থিতি তৈরী করতে পারে তা নিয়ে সতর্ক বার্তা দিয়ে ইতিমধ্যেই একজোট হয়েছেন চিকিত্‍সকরা। তাই বাজি বিক্রি বন্ধ করতে এ বার রাজ্য ও কেন্দ্রের কাছেও আবেদন জানিয়েছেন পরিবেশকর্মীদের একাংশ। পরিবেশকর্মী সুভাষ দত্তের কথায়, ”অন্য বছর শীতের দূষণে শহরের কী অবস্থা হয়, তা আমরা জানি। এ বছর তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে করোনা সংক্রমণ। তাই কোনও রকম ঝুঁকি নেওয়া যাবে না।”

সার্বিকভাবে বাজি পোড়ানোর ক্ষেত্রে বছর দুয়েক আগেই নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সুপ্রিম কোর্ট। সে কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রীকে লেখা চিঠিতে সুভাষ দত্ত বলেছেন, বাজি পোড়ানোর সুপ্রিম কোর্ট একাধিক নির্দেশিকা জারি করলেও বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিভিন্ন সময় তা অমান্য করা হয়েছে। কিন্তু এই চরম পরিস্থিতিতেও গোটা দেশে যদি বাজি উত্‍পাদন, পরিবহণ, বন্টন ও কেনাবেচায় কেন্দ্রীয় সরকার কোন পদক্ষেপ গ্রহণ না করে তাহলে এই মারণ ভাইরাস আগ্নেয়গিরির চেহারা নেবে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]