আগরতলাঃ-আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে ২১শে ফেব্রুয়ারি আগরতলা রবীন্দ্র শতবার্ষিকী ভবনে এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান ও স্মৃতি স্মারকে পুষ্পার্ঘ অর্পণের মধ্য দিয়ে ভাষা শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। অনুস্থানের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব,ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ,রাজস্ব মন্ত্রী এনসি দেববর্মা ও অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গরা। মুখ্যমন্ত্রী সহ অন্যান্যরা স্মৃতি স্মারকে পুষ্পার্ঘ অর্পণের মধ্য দিয়ে ভাষা শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।অনুস্থানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন ভারতবর্ষের মত ত্রিপুরাতেও অনেক ভাষার প্রচলন রয়েছে। প্রতিটি ভাষাই আমাদের সংস্কৃতির জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

২১শে ফেব্রুয়ারি শোকবাহী,অহঙ্কার,গৌরবোজ্জ্বল, মহিমান্বিত।বুকের রক্ত বিনিময়ে বাংলা ভাষার মর্যাদাকে চির স্বরনীয় করে রাখার জন্য যে লড়াই হয়েছিল তাঁর আজ আরও একটি বছর পূর্তি।সাহস আর প্রত্যয় নিয়ে আজকের দিনেই মাতৃ ভাষায় কথা বলার দাবিতে বাংলাদেশের দামাল ছেলে আবদুল জব্বার,আবদুস সালাম,রফিক উদ্দিন আহমেদ,আবুল বরকত এর রক্তে রঞ্জিত হয়েছিল বাংলাদেশের রাজপথ।মাতৃ ভাষায় কথা বলার দাবি নিয়েই আজকের দিনে শহীদ হয়েছিলেন তাঁরা।

১৯৫২ সালের একুশে ফেব্রুয়ারিতে বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে ঢাকার রাজপথ সংগঠিত হয়েছিল এই ভাষা আন্দোলন।এই বলিদানের ভিত্তিতেই বাংলা ভাষা বাংলাদেশের রাষ্ট্রভাষার মর্যাদা পায়। মাতৃভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য এই একুশে ফেব্রুয়ারির আন্দোলনই ছিল ঔপনিবেশিক শাসন এবং শাসক গোষ্ঠির প্রভু সুলভ মনোভাবের বিরুদ্ধে বাঙালি জাতির প্রথম আন্দোলন।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]