নিউজ ডেস্ক, আগরতলাঃ- সামনে এল ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীকে হত্যার ছক 


কিছুদিন আগে আন্তর্জাতিক নেশা কারবারের সাথে যুক্ত বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে কর্মরত আজম খান নামক এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ জানতে পেরেছিল মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে হত্যার পরিকল্পনা চলছে । সেইখবর জানা মাত্রই উঠেপড়ে লাগে পুলিশ প্রশাসন , শুরু হয় তদন্ত, আর সেই তদন্তেই গোয়েন্দাদের হাতে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য । কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা দ্বারা প্রকাশিত সেই তথ্যে জানান হয়, মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে হত্যার পরিকল্পনা কষেছে আন্তর্জাতিক নেশা কারবারিরা । সেইসাথে আন্তর্জাতিক নেশা কারবারিদের সঙ্গে রাজ্যের নেশা কারবারিরাও যুক্ত রয়েছে বলে সন্দেহ প্রকাশ করেছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা । জানাযায়, মায়ানমার ও থাইল্যান্ডের নেশা কারবারি ও মাফিয়ারা এই চক্রান্ত করছে ।

প্রসঙ্গত, রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই নেশামুক্ত ত্রিপুরা গড়ার লক্ষ্যে নেশা কারবারিদের বিরুদ্ধে রীতিমত বিদ্রোহ ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব । প্রায় ধ্বংস করে ফেলেছেন বাম আম্লে তৈরি নেশা কারবারিদের স্বর্গ রাজ্য । মুখ্যমন্ত্রীর নেশামুক্ত ত্রিপুরা গড়ার লক্ষ্যকে সফল করতে নিজেদেরকে উজাড় করে ময়দানে নেমেছে রাজ্যের পুলিশ প্রশাসনও ।  প্রতিদিনই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে নেশা বিরোধী অভিযান চালিয়ে আটক করা হচ্ছে গাঁজা, ফেন্সিডিল, হেরোইন সহ নানান নেশা জাতীয় দ্রব্য । প্রতিদিন কোটি কোটি টাকা ক্ষতির ফলে কার্যত কোমর ভেঙ্গে গেছে আন্তর্জাতিক নেশা কারবারি চক্রের । আর তাই মুখ্যমন্ত্রীকে পথ থেকে সরাতে এবার ছক কষছে ড্রাগস মাফিয়ারা ।

কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার প্রকাশিত এই রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পরই নড়েচড়ে বসে রাজ্য আরক্ষা দপ্তর । উদ্ভূত পরিস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রীর নিরাপত্তা জোরদার করার সিদ্ধান্ত নেয় রাজ্য সরকার । সেইসাথে মুখ্যমন্ত্রীর নিরাপত্তায় কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকেও সব ধরনের সাহায্যের আশ্বাস দেওয়া হয় । নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে গতকাল রাতপর্যন্ত সচিবালয়ে উচ্চপর্যায়ের বৈঠক হয় আরক্ষা দপ্তরের । বৈঠকে বর্তমান পরিস্থিতির চুলচেরা বিশ্লেষণ করা হয় ও সেই সাথে নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে নতুন ভাবে ঢেলে সাজানোর জন্য ব্লু-প্রিন্টও তৈরি হয় বলে জানা যায় । 

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]