বিপ্লব দাস, নিজস্ব প্রতিনিধি, আলিপুরদুয়ারঃ- এ এক অন্য কাহিনী কষ্টে ও  জীবনের ছন্দে নেই কোন ভাষা । জন্মলগ্ন থেকেই মূক-বধির প্রতিবন্ধী দুই ভাই এখন সর্বহারা । মাথা গোজার ঠাই আছে কিন্তু নেই মাথায় হাত বুলিয়ে দেওয়ার কেও ।  


পশ্চিমবঙ্গের আলিপুরদুয়ার জেলার মাদারিহাট মেঘনাদ সাহা নগরের এই দুই ভাই নাম শেরবাহাদুর শর্মা এবং ধরমবীর শর্মা , দুজনেই প্রতিবন্ধী ৭৫% এবং ৫৫% । ছোটবেলায় মাকে হারালেও জীবনের সম্বল ছিল বাবা , কিন্তু সেই বাবাও আজ আর নেই তাই খেয়াল রাখার মত কেউ নেই এই ২ ভাইয়ের । স্থানীয় বাসিন্দা এবং পঞ্চায়েত সূত্রে জানা যায় এরা জন্ম থেকেই মূক বধির। থাকার জন্যে ছোট একটি ঘর থাকলেও নিজেরা উপার্জন করতে এবং রান্না করে খেতে পারেনা তাই পাড়া প্রতিবেশীরা যা খেতে দেয় তাই খেয়ে দিন কাটছে তাদের । 

আমাদের প্রতিনিধীকে এক সাক্ষাতকারে প্রতিবেশী রাধিকা শর্মারা জানান , ওই দুই ভাইয়ের দেখাশোনা করার মত কেউ নেই, কেউ না থাকায় তারা খুব কষ্টে দিন কাটাচ্ছেন । আগে বাবা ছিলেন, তিনিই উপার্জন করে তাদের রেঁধে খাওয়াতেন। কিন্তু প্রায় তিন মাস হলো তিনি মারা যাওয়ার পর থেকে তাদের কষ্টের মাত্রা সীমাহীন বেড়ে গেছে। আমরা চাই সরকারি সুযোগ সুবিধা পাক দুই ভাই । অপর একজন প্রতিবেশী তথা স্থানীয় বিদায়ী পঞ্চায়েত সদস্য উত্তম শর্মা জানান এরা কষ্টে আছে তা আমরা প্রায় সবাই জানি। তাদের প্রায় তিন বছর আগে একটি ইন্দিরা আবাস এর ব্যাবস্থা করে দিয়েছিলাম। কিন্তু রান্না করতে পারেনা বলে খেতে তাদের সমস্যা রয়েছে। সরকারি তরফে জি আর তারা পাচ্ছে বর্তমানে। সরকারি ‘ সহায়তা প্রকল্প’ নামে একটি প্রকল্প ছিল। কিন্তু বর্তমানে নতুন করে আর নাম নথিভুক্ত হচ্ছেনা বলে জানতে পেরেছি। তাই ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও বেশি কিছু করা যাচ্ছে না । কিছুদিন হলো তাদের প্রতিবন্ধী শংসাপত্র বানানো হয়েছে।’ তিনি আরো জানান সরকার থেকে যদি কোনও রকম সাহায্য না করে তাহলে প্রতিবেশীদের বাড়িতে খাওয়া ছাড়া তাদের আর কোনো পথ নেই।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]