নিউজ ডেস্ক ঃ – আজ প্রকাশিত হয় আসামের জাতীয় নাগরিকপঞ্জির তালিকা এবং সেই তালিকা থেকে বাদ পরে ৪০ লক্ষ নাম । আর তারপর থেকেই পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল সহ বামফ্রন্ট ও কংগ্রেসের  নিশানায় চলে এসে বিজেপি শাসিত আসাম রাজ্য সরকার ।


এন.আর.সি. ইস্যুতে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বলেন শুধুমাত্র ভোটব্যাঙ্কের রাজনীতির জন্য বিজেপি সরকার ৪০ লাখ মানুষের নাম বাদ দিয়েছে , যারা বিজেপি করে না বেছে বেছে তাদের বাদ দিয়ে ভারত সরকার “ডিভাইড এন্ড রুলস” পলিসি চালাচ্ছে ।  বিজেপি সরকারের বিরদ্ধে তিনি রুখে দাড়াবেন  প্রয়োজনে তিনি আসাম যাবেন বলেও জানান । একই সুর বাংলার কংগ্রেস ও বামফ্রন্টের গলাতেও ।

কিন্তু আসাম সরকারের ওপর ওঠা এই সব অভিযোগ খারিজ করে দেন আসামের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সানোয়াল এবং অর্থমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা । তারা বলেন এন.আর.সি.- এর যে তালিকা বেরিয়েছে তা সর্ব রাজনৈতিক দল সম্মত এবং চূড়ান্ত নয় । যাদের কাছে বৈধ কাগজপত্র আছে অথচ তালিকায় নাম ওঠেনি তাদের নতুন করে আবেদন করার কথা জানানো হয় , সেই সাথে যতক্ষণ এখনি কাওকে রাজ্য ছাড়তে বলাও হয়নি বলে জানান তারা । 


আজ সর্বদল বৈঠকের পর আসামের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সানোয়াল এবং অর্থমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা আরও জানান যে সরকার কোন রাজনৈতিক খেলা খেলছে না , যারা ভারতীয় তাদের সমস্ত জাত , ধর্ম , বর্ণ  নির্বিশেষে জাতীয় নাগরিকপঞ্জিতে নাম তুলতে সব ধরনের সাহায্য করবে আসাম সরকার । 

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]