চিনের বিরুদ্ধে দ্রুত যে কোন পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য আসামের ব্রহ্মপুত্র নদীর উপরেই কিছুদিন আগে ভারতের সব থেকে দীর্ঘ সেতু ( ৯১৫০ মিটার ) , ভুপেন হাজারিকা সেতুর উদ্বোধন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ,  সেই সঙ্গে সেনা যাতায়াত অবাধ রাখার জন্য ব্রহ্মপুত্রের তলায় এ বার সুড়ঙ্গ বানাবে কেন্দ্রীয় সরকার। ।

এমনি পরিকল্পনার কথা শোনা গেল রবিবার ফোর্ট উইলিয়ামে বিজয় দিবস উপলক্ষে সেনাবাহিনীর কর্তাব্যক্তিদের সঙ্গে কথাবার্তার ফাঁকে । ব্রহ্মপুত্রের উপরকার সেতু যদি কোনও ভাবে ধ্বংস হয়ে যায়, তা হলেও অস্ত্রশস্ত্র, সেনা গাড়ি নিয়ে সেনা যাতায়াত যাতে বন্ধ না-হয়, সেই জন্যই এই সুড়ঙ্গ তৈরির সিদ্ধান্ত । ব্রহ্মপুত্রের কোন কোন এলাকায় সুড়ঙ্গ বানানো হবে, তা এখনও ঠিক না হলেও একাধিক সুড়ঙ্গ তৈরির পথেই এগোচ্ছে কেন্দ্র।
চিনের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে ভারতের শীর্ষ কর্তাদের কপালে চিন্তার ভাঁজ অনেকদিন থেকেই , কিছুদিন আগে ডোকলামে চিনা সেনাদের আগ্রাসন নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছিল দিল্লি। অরুণাচলের সঙ্গে চিন সীমান্ত নিয়ে চিন্তিত সেনাবাহিনীও। সেই কারনে উত্তর-পূর্বাঞ্চলে পরিকাঠামো উন্নয়নে জোর দেওয়া হচ্ছে। তাই উত্তর-পূর্বে সেনাবাহিনীর ঘাঁটিকে ঢেলে সাজানোর পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গে পানাগড়, কলাইকুন্ডার মতো বায়ুসেনা ঘাঁটির শক্তিও বাড়ানো হচ্ছে বলে জানা যায় ।  

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]