নিউজ ডেস্ক ত্রিপুরা ঃ-

মুখ্যমন্ত্রী জায়া নীতি দেব স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিলেন সবটাই গুজব এবং অপপ্রচার। গত ২দিন ধরে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে প্রচারে আসে মুখ্যমন্ত্রীর পারিবারিক একটি বিষয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় নিমিষের মধ্যেই বিষয়টি ভাইরাল হয়ে পড়ে। মুখ্যমন্ত্রী দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে বিষয়টি এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হয়েছে। এবং মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব তার তীব্র প্রতিবাদ এবং নিন্দা জানিয়েছেন। তিনি মনে করেন এটা ইচ্ছাকৃত ভাবে তার ছবি নষ্ট করার চেষ্টা। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এফ আই আর দায়ের করা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী এই ধরনের অপপ্রচারে কান না দেওয়ার জন্য রাজ্য বাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। অন্যদিকে, ত্রিপুরা জার্নাল প্রতিনিধিকে দেওয়া একান্ত টেলিফোনিক সাক্ষাৎকারে নীতি দেব জানান, ২৫শে এপ্রিল রাতে বিষয়টি নজরে আসার পর ঘটনায় ভীষণভাবে মর্মাহত হয়েছেন তিনি। এক বোন অসুস্থ তার জন্যই দিল্লিতে আসা, অন্যদিকে নিজের শারীরিক রুটিন চেকআপ। দীর্ঘদিন দিল্লিতে থাকার সুবাদে প্রায়ই বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কাজে দিল্লিতে ছুটে যেতে হয়। সেটা নতুন কিছু নয়। আর এবারের সফর টাও ছিল বাকি আর ৫টা সফরের মতোই। বাচ্চারাও এই বিষয়টি থেকে মানসিকভাবে আঘাতপ্রাপ্ত হয়। যদিও তিনি বাচ্চাদের বুঝিয়েছেন সবটাই অপপ্রচার, তিনি বাড়ি ফিরছেন খুব শীঘ্রই। তিনি অভিযোগ করেন যদি মুখ্যমন্ত্রীর স্ত্রীর বিরুদ্ধে এই ধরনের অপপ্রচার ছড়ানোর চেষ্টা হয়ে থাকে, তাহলে সেটা অন্য মহিলা বা মেয়েদের সাথেও হতে পারে। তিনি বলেন, কারা এই ধরনের অপপ্রচার চালাচ্ছেন তাদেরকে সনাক্ত করতে হবে। কদিন আগেই সমাজ কল্যাণ সমাজ শিক্ষা দপ্তরের মন্ত্রী সান্তনা চাকমা কে নিয়ে ভাইরাল হওয়া একটি বিষয় নিয়ে সরব হন তিনি। ত্রিপুরার মানুষ মুখ্যমন্ত্রী এবং মুখ্যমন্ত্রী জায়াকে দুহাত ভরে আশীর্বাদ দিয়েছেন। ত্রিপুরাকে মডেল বানানোর লক্ষ্যে দিনরাত কাজ করে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। আর একটা অংশ এই ভাবে ব্যক্তিগত আক্রমণ করে কুৎসা রটানোর চেষ্টা করছে। তিনি বলেন যারা এই কাজের সঙ্গে যুক্ত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এবং এই ধরনের ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান। 

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]