নিউজ ডেস্ক, দিল্লিঃ-কৃষকদের জন্য সুখবর নিয়ে আসছে মোদি সরকার। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে ঘোষণার প্রস্তাবপত্রও তৈরি হয়ে গেছে বলে সূত্রের খবর, খুব শীঘ্রই কেন্দ্রীয় সরকার এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহন করতে চলেছে, এরপরই হবে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা। কেন্দ্রীয় সরকারের নতুন প্রস্তাব অনুসারে এর সুবিধা ভূমিহীন কৃষকরাও পাবেন। এই স্কিম এর মাধ্যমে কৃষকদের কৃষি কাজের খরচ সরাসরি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট-এ ট্রান্সফার করে দেওয়া হবে বলে জানা গেছে । প্রতিটি কৃষক পরিবারের জন্য টাকার একটি নির্দিষ্ট সীমা থাকবে এই স্কিমে, যে সব কৃষকদের নিজস্ব জমি নেই তারাও এই স্কিমের সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।এই স্কিমটি অনেকটা উড়িষ্যা এবং তেলেঙ্গানা রাজ্যের মত। তেলেঙ্গানার কে চন্দ্রশেখর রাও সরকার প্রতিবছর কৃষি মরশুমের আগে কৃষকদের ব্যাংক একাউন্টে প্রতি একর চার হাজার টাকা করে দিয়ে থাকে,আর উড়িষ্যায় সেই অঙ্কটা পাঁচ হাজার টাকা করে। উড়িষ্যার নাবিন পট্টনায়ক সরকার প্রতিবছর কৃষি মরশুমের আগে প্রত্যেক কৃষক পরিবারকে পাঁচ হাজার টাকা তাদের ব্যাংক একাউন্টে দিয়ে থাকে।

কেন্দ্রের প্রস্তাবিত স্কিমেও টাকার একটি নির্দিষ্ট সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে।এই স্কিমে আর্থিক সহায়তা এবং ফসল বীমার ঋণ একসঙ্গে থাকবে বলে জানা গেছে। নতুন এই প্রকল্পে আর্থনৈতিক ভাবে দুর্বল কৃষক পরিবারও সাহায্য পাবে।এই প্রকল্পে কৃষকদেরকে শূন্য শতাংশ সুদের হারে ঋণ দেওয়ারও পরিকল্পনা করছে কেন্দ্রীয় সরকার।

কিছুদিন আগেই মধ্যপ্রদেশ,ছত্রিশগড় এবং রাজস্থান বিধানসভা নির্বাচনে কৃষকদের মন যোগাতে না পারায় ভারতীয় জনতা পার্টি কে ওই তিন রাজ্যে ক্ষমতা হারাতে হয়েছে বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অভিমত,এই কারণেই কেন্দ্রীয় সরকার কৃষকদের জন্য এই যুগান্তকারী স্কিমটি আনতে চলেছে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। যদিও রাজনৈতিক পণ্ডিতদের এও দাবি যে লোকসভা ভোটকে প্রভাবিত করতেই এ রকম চিন্তাভাবনা করছে বিজেপি সরকার, কিন্তু বিগত কয়েকদিনে কেন্দ্রের মোদি সরকার যেভাবে জনগণকে কাছে টানতে বিভিন্ন রকমের বিল সংসদে পেশ করছে এবং নুতন নুতন স্কিম আনছে তাতে এটা পরিষ্কার যে মোদি সরকার কোনোও ভাবেই ক্ষমতা হাত ছাড়া করতে চাইছে না এবং এই নতুন নতুন ও জনমুখী সিদ্ধান্তগুলো আগামী দিনের লোকসভা নির্বাচনে ভারতীয় জনতা পার্টিকে এক্সট্রা মাইলেজ দেবে বলেই দেশের তাঁবার রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা অনুমান করছে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]