নিউজ ডেস্ক,নয়া দিল্লীঃ-
জঙ্গি দমনে আরও কঠোর পদক্ষেপের পথে ভারত৷ইতিমধ্যেই সেনাবাহিনীকে দেওয়া হয়েছে “খূলী ছূট”।কাশ্মীরে জঙ্গি দমনে নেওয়া হয়েছে জিরো টলারেন্সের নীতি৷শনিবার বিজেপির কোর কমিটির বৈঠকে পাকিস্তানকে উচিত শিক্ষা দিতে চরম পদক্ষেপের কথাও বলা হয়।দেশে জরুরি অবস্থা জারির সম্ভাবনার কোথাও উঠে আসে আজকের বৈঠকে৷কিন্তু জঙ্গি দমনে সীমান্তে কড়া পদক্ষেপ ও নিরাপত্তা বৃদ্ধিরই সিদ্ধান্ত হয় শেষ পর্যন্ত৷এদিন সকালে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাসভবনে একপ্রস্থ বৈঠক হয়৷সর্বদলীয় বৈঠকেও সব রাজনৈতিক দল একযোগে পুলওয়াম জঙ্গি হানার নিন্দা করা হয়৷এই পরিস্থিতিতে দেশের সুরক্ষায় জোড় দেওয়ার উপর সব রাজনৈতিক দল গুরুত্ব আরুপ করে।সন্ত্রাস নির্মূলে যা সিদ্ধান্ত সরকার নেবে তারা তার সমর্থন করা হবে বলে জানানো হয়৷যার ফলে কড়া পদক্ষেপ গ্রহণের ক্ষত্রেও মিলে গেল সবুজ সংকেত৷আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রেও মিলেছে আমেরিকা থেকে মধ্যপ্রাচ্য সকলের সহযোগিতার আশ্বাস।পাঠানকোটের পর উরি এরপর পুলওয়ামার আত্মঘাতী হামলা,শহীদ চল্লিশ সিআরপিএফ জওয়ান৷ক্ষভে রাগে ফুঁসছে গোটা দেশ৷পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য আওয়াজ উঠেছে সাড়া দেশে৷বিজেপি দলের ভিতর থেকেও আওয়াজ উঠছে৷সর্বদল বৈঠকে মিলেছে সবুজ সংকেত৷কিন্তু শেষ মুহূর্তে দেশে জরুরি আবস্থা জারির মত কড়া পদক্ষেপ থেকে সরে আসে শাহ-মোদী জুটি৷দেশের নিরাপত্তা সবার আগে৷আর এই নিরাপত্তার বিষয়টিকে অগ্রাধিকার দিতে গিয়ে যদি ভোট পিছিয়ে যায় তাতে আপত্তির কিছু নেই বলে বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়৷তবে দেশের নিরাপত্তার প্রয়োজনে জারি করা হতে পারে জরুরি অবস্থা৷এছাড়াও সিদ্ধান্ত হয় সীমান্তে আপোষহীনভাবে দমন করা হবে পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি কার্যকলাপ৷

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]