বঙ্গে চলতি বছর দুর্গাপুজোয় একটি শব্দের ব্যাপক প্রচলন হয়েছিল, তা হল ‘করোনাসুর’। এবার ‘করোনাসুর’ বধ করেত দেশে চলে এসেছে পুতিনের দেশের ভ্যাকসিন। ভারতে পৌঁছল ‘স্পুটনিক ভি’। এই ভ্যাকসিন কোভিড প্রতিরোধে ৯২ শতাংশ কার্যকরী, এমনটাই দাবি করেছে রাশিয়া। গোটা পৃথিবীতে আক্রান্তের সংখ্যা এখনও নিয়ন্ত্রনের বাইরে।

শীঘ্রই হায়দরাবাদে ভারতীয় সংস্থা ডঃ রেড্ডিস-এর সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে শুরু হবে ‘স্পুটনিক ভি’-এর ক্লিনিকাল ট্রায়াল। আগেই এই নিয়ে ডক্টর রেড্ডির সংস্থার সঙ্গে চুক্তি হয়েছিল। বিশ্বের প্রথম করোনা প্রতিষেধক হিসাবে ‘স্পুটনিক ভি’ বাজারে এনে শোরগোল ফেলে দিয়েছিল রাশিয়া। খোদ রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সেই ভ্যাকসিনের কথা ঘোষণা করেছিলেন। এমনকী রাশিয়াতেই প্রথম পর্যায়ে স্বাস্থ্যকর্মী ও চিকিত্‍সকদের ভ্যাকসিন দেওয়া হয়।

অন্যদিকে কোভিড প্রতিরোধে কাজ করছে ‘কোভিশিল্ড’। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার এই ভ্যাকসিন কার্যত সফল। অর্থাত্‍, এখনও পর্যন্ত তেমন কোনও সমস্যা তৈরি হয়নি। অন্তত দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল চলাকালীন রিপোর্টে এমনটাই জানা যাচ্ছে। ফলে কেন্দ্রও চাইছে, চলতি বছরের শেষে বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের এই টিকা দেওয়ার কাজ শুরু হোক। সেই মতো ৪ কোটি ডোজও তৈরি করে ফেলেছে সেরাম।

তবে, সম্পূর্ণরূপে ‘কোভিশিল্ড’ বাজারে আসতে আরও কিছুটা সময় লাগবে। তার আগে হাইপার টেনশন, ডায়াবেটিস বা অন্য কোনও সমস্যার কারণে অতি-বয়স্কদের মধ্যে যাঁদের শারীরিক জটিলতা বাড়ার সম্ভাবনা প্রকট, তাঁদের ডিসেম্বর মাসেই টিকা প্রদানের কাজ শুরু হতে পারে বলে জানিয়েছে আইসিএমআর। এখন শুধু ড্রাগস কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়ার (ডিসিজিআই) অনুমোদনের অপেক্ষা। এ ব্যাপারে তারা অন্তবর্তীকালীন বিশ্লেষণের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানা গিয়েছে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]