নিউজ ডেস্ক, আগরতলাঃ-

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশের গরিব উচ্চ বর্ণের কথা মাথায় রেখে তাদের জন্য সংরক্ষণ বিল আনেন। সবদিক খতিয়ে দেখে এই সংরক্ষণ বিলে স্বাক্ষর করেন দেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।  গত শনিবার এই বিলে স্বাক্ষর করেন মহামান্য রাষ্ট্রপতি। আর এই সংরক্ষণ বিল প্ৰথম লাগু করল গুজরাট। গুজরাটে এর আইন লাঘু হয়েছে গতকাল অর্থাৎ রবিবার। গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি  এদিন সাংবাদিক সম্মেলন করে জানিয়ে দিয়েছেন রাজ্যের সমস্ত গরিব উচ্চবর্ণের জন্য এই বিল চালু করা হবে আগামী ১৪ই জানুয়ারি থেকে। শিক্ষাক্ষেত্রে ও সরকারি চাকুরির ক্ষেত্রে এই আইন লাঘু করা হবে। উল্লেখ্য আগামী ২০ জানুয়ারি থেকে গুজরাটে পাবলিক সার্ভিস পরীক্ষা শুরু হতে চলেছে, আর সেই জন্যই গুজরাট সরকার এই নিয়ম চালু করে দিলেন।

পটেলদের সংরক্ষনের দাবিতে বিগত কয়েকমাস আগেই গুজরাট উত্তাল হয়ে উঠেছিল।বিগত বিধানসভা নির্বাচনে পতিদার আন্দোলনের নেতা হার্দিক পটেল কংগ্রেস কে সমর্থন করেছিল ।কিন্তু গুজরাট প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অমিত ছোবড়া রাজ্য সরকারের এই জনকল্যাণমূলক সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছেন । উনি দাবি করেছেন এত তাড়াহুড়ো করে নিয়ম চালু করার কোনো অর্থই হয় না। মুখ্যমন্ত্রী হটাৎ কেন এত তাড়াহুড়ো করে এই সংরক্ষণ নিয়ম লঘু করলেন এতে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হবে।

এই সংরক্ষণ বিল মোদী সরকার এনেছেন দেশের সাধারণ গরিব উচ্চ বর্ণের মানুষের কথা ভেবে। বিগত দিনে কোন সরকারই উচ্চ বর্ণের গরিবদের কথা ভাবেন নি। স্বাধীনতার পর এই প্রথমবারের মত মোদী সরকার গরিবদের কথা ভেবে সংরক্ষণ বিল চালু করলেন।

                                                                                                       

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]