ব্যুরো রিপোর্ট, নেশন লাইভ বাংলাঃ- ২০শে নভেম্বর বুধবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জানান আসাম এর পাশাপাশি এবার সারা ভারতবর্ষে চালু করা হবে এনআরসি বা জাতীয় নাগরিকপুঞ্জি এবং সমস্ত অবৈধ অভিবাসীদের আইনী উপায়ে দেশের বাইরে বের করে দেওয়া হবে। সেইসাথে তিনি আরও বলেন, ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের রায়ের মাধ্যমে দেশের জনগণ জাতীয় নাগরিকপুঞ্জি দেশব্যাপী বাস্তবায়ন করার জন্য এর অনুমোদনে স্ট্যাম্প দিয়েছে।

এছারাও তিনি বলেন, ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের আগে আমরা আমাদের নির্বাচনী ইশতেহারে দেশের জনগণকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম যে, কেবল আসামে নয়, আমরা সারা দেশে এনআরসি নিয়ে আসব এবং দেশের জনগণের একটি নিবন্ধক করব এবং অন্যদের (অবৈধ অভিবাসী) অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে আইন, সাথে তিনি এনআরসি বিরোধী সহ অন্যান্য বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলিকে এটাও স্পষ্ট করে দেন এনআরসির মানে শুধু আসামের নাগরিকপুঞ্জি বা নিবন্ধক নয়, এনআরসির মানে হল জাতীয় নাগরিকপুঞ্জি । সুতরাং, দেশের জনগণের সঠিক তালিকা তৈরি করতে সারা দেশে এনআরসি প্রয়োগ করা উচিত ।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, যে আসামে এনআরসি থেকে অব্যাহতিপ্রাপ্তদের ট্রাইব্যুনালের সামনে মামলা উপস্থাপনের সুযোগ দেওয়া হয়েছে এবং আসাম সরকারকে বলা হয়েছে যে সমস্ত অব্যাহতিপ্রাপ্তকারীদের ফিস বহনের সামর্থ নেই তাদের মামলা করার জন্য রাজ্য সরকারে পক্ষ থেকে বিনামুল্যে আইনজীবীদের ব্যবস্থা করে দেওয়ার জন্য । সেইসাথে বিরোধীদের উদ্দ্যেশ্যে তিনি প্রশ্ন ছুঁড়ে বলেন আপনি/আপনারা কি আমেরিকাতে গিয়ে বসতি স্থাপন করতে পারবেন ? আপনি ইংল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস, রাশিয়াতে বসতি স্থাপন করতে পারবেন ?? যতই চেষ্টা করুন কেউ আপনাকে অনুমতি দেবে না কিন্তু অন্য দেশ থেকে যে কেউ আসে এবং ভারতে বসতি স্থাপন করে। আমি দৃঢ় ভাবে বিশ্বাস করি যে এমন একটি দেশ নেই যেখানে কেউ কেবল গিয়ে বসতি স্থাপন করতে পারে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সেইসাথে বিরোধীদের কাছে অবাক হয়ে জানতে চান দেশের সুরক্ষার প্রশ্নে জাতীয় নাগরিকপুঞ্জি নিয়ে রাজনীতি কোথায থেকে আসে ? তারমানে কি বিরোধীদের কাছে আগে নিজেরদের স্বার্থ এবং পরে দেশে ও দেশবাসীদের সুরক্ষা ??

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]