নিউজ ডেস্ক কলকাতা ঃ-

”মমতাদিদি চাননি পাকিস্তানকে ভারত প্রত্যাঘাত করুক,”। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ আলিপুরদুয়ারের সভামঞ্চ থেকে আরও একবার তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করলেন। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ লোকসভা ভোটের আগে আবারও প্রচারে এলেন রাজ্যে। ২৯শে মার্চ আলিপুরদুয়ারে নির্বাচনী সভা করেন তিনি বিজেপি প্রার্থী জন বার্লার সমর্থনে। তিনি সভামঞ্চ থেকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূল সরকারকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন। অমিত শাহ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে  আরও বলেন, ”পাকিস্তানি সন্ত্রাসবাদীরা ভারতীয় জওয়ানদের হত্যা করেছে, তার জবাব দিয়েছে ভারত। পাকিস্তানের প্রতি প্রত্যাঘাত চাননি মমতাদিদি। দেশের প্রতি ওঁর ভালোবাসা নেই।” এদিন হিন্দু পূজারিদের কথা উল্লেখ করে  অমিত শাহ বলেন, ”মমতাদিদি ইমামদের ভাতা দেন। তবে পূজারিদের ভাতা দেন না কেন তিনি?” অমিত শাহ এদিনের সভার শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ‘মমতাদিদি’কে চাঁচাছোলা ভাষায় বিদ্ধ করেছেন। সিপিএমের প্রসঙ্গ টেনে এনে ”সিপিএম থেকে বাঁচতে দিদিকে এনেছিলেন তিনি। এখন সবাই বুঝছে সিপিএম ভালো ছিল। আজ কারোরই মা-মাটি-মানুষের সরকারের শ্লোগানে ভরসা নেই।”২০১৯ এর ভোট দেশের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলেন সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। এই নির্বাচন আগামী পাঁচ বছরে দেশের দিশা ঠিক করবে। এই নির্বাচন অস্বিত্ব রক্ষার নির্বাচন বাংলার জন্য।” তৃণমূলকে কটাক্ষ করেন বলেন, তৃণমূল ”বাংলায় গণতন্ত্র ধ্বংস করছে।” মোদীর জয়ের ডাক দিয়ে তিনি বলেন, ”একদিকে দুর্বল জোট অন্যদিকে পরাক্রমী মোদী”। সময় এসে গেছে তৃণমূলকে সমূলে উত্খাত করার। আপনার সময় শেষ হয়ে গিয়েছে এ কথাই বলব মমতাদিদিকে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]