নিউজ ডেস্ক, লখনউ:-   স্বাধীনতা দিবসের দিন উত্তরপ্রদেশের একটি মাদ্রাসায় মুসলিম শিক্ষকদের জাতীয় সংগীত গাওয়ায় বাতিল করা হল মাদ্রাসার স্বীকৃতি । 


স্বাধীনতা দিবসের দিন পতাকা উত্তোলনের পর উত্তরপ্রদেশের মহারাজাগঞ্জ জেলায় মাদ্রাসা আরবিয়া আহলি গার্লস কলেজে ছাত্র-ছাত্রীদের জাতীয় সংগীত গাইতে বাধা দেন মাদ্রাসা শিক্ষকেরা এবং বলতে থাকেন তারা জাতীয় সংগীত গাইবে না সেইসাথে কেউ প্রতিবাদ করতে তাকে প্রশ্ন করা হয় তিনি মুসলিম কিনা ? 

পরে ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় আসা মাত্রই আমরা ( নেশন লাইভ বাংলা ) জনগনের সামনে তুলে ধরেছিলাম এই ঘটনাটি যার ফলে কিছু মানুষের রোষের মুখে পড়তে হয় আমাদের ‌‌ । নানান কুরুচিকর মন্তব্য সহ বিভিন্ন ধরনের হুমকিও আসে আমাদের কাছে তা সত্ত্বেও আমরা এই ভিডিওটি আমাদের চ্যানেলে প্রকাশ করি । আমরা যে সেদিন ভুল ছিলাম না তার প্রমান আজ করে দিল উত্তর প্রদেশ সরকার । উত্তরপ্রদেশ শিক্ষা দপ্তরের পক্ষ থেকে ওই মাদ্রাসাটি স্বীকৃতি বাতিল করার কথা জানানো হয় ।

জানা যায় ওই মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক ফজলাল রহমান সহ যে কয়জন শিক্ষক স্বাধীনতা দিবসে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের পর ছাত্র-ছাত্রীদের জাতীয় সংগীত গাইতে বাধা দিয়েছিলেন, তাদের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহের  মামলাও ইতিমধ্যে করা হয়েছে সেই সাথে তাদের গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ।  মহারাজগঞ্জ জেলাশাসক অমরনাথ উপাধ্যায় ও জেলা সংখ্যালঘু কল্যাণ আধিকারিক প্রভাত কুমার জানান, ঘটনার ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়া মাত্রই সম্পূর্ণ ঘটনা পূর্ণাঙ্গ তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল , সেই রিপোর্টে দোষী সাব্যস্ত হয় ওই শিক্ষকেরা এবং সাথে সাথেই শিক্ষকদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহের মামলা রুজু করে বাতিল করা হয় মাদ্রাসার স্বীকৃতি । 

সেদিনের সম্প্রসারণ করা পূর্ণাঙ্গ নিউজটি দেখুনঃ-

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]