নিউজ ডেস্ক, নিউ দিল্লীঃ- আপনি কি জানেন আমাদের দেশ ভারতবর্ষের বর্তমান রাষ্ট্রপতি কে ? যদি ভাবেন রামনাথ কোবিন্দ, তাহলে একদম ভুল ভাবছেন । আমাদের দেশের বর্তমান রাষ্ট্রপতি হলেন পি.এম. মোদী । 

হ্যাঁ, ঠিকই দেখছেন । এটা কোন গল্প কথা নয়, এটাই বাস্তব । আর এই বাস্তবটা আমাদের সামনে তুলে ধরেছেন অসমের ধুবুরি জেলার মানকাচর বিধানসভা কেন্দ্রের ঝগড়ারচর গ্রাম পঞ্চায়েতের কংগ্রেসের ভোট প্রার্থী ইবলিনা সুলতানা । শিক্ষা ও পরিচয়গত দিক থেকে তিনি আবার এমএ পাশ এবং জুনিয়র কলেজের উপাধক্ষা । তাই তার মত শিক্ষিতা, রাজনীতি এবং প্রশাসন সম্পর্কে ‘অগাধ’ সাধারণ জ্ঞান যার আছে, তাঁকে প্রার্থী করে গর্বে বুক ভরে উঠেছে কংগ্রেস নেতাদের । শুধু কংগ্রেস দল নয়, নিজেকে নিয়ে গর্ব আর অহংকার কম নেই স্বয়ং ইবলিনার । তাই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বললেন, আমি তো এম.এ পাশ সেইসাথে কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল। তাই আমি জনগণের জন্য ভাল কাজ করতে চাই । 

এই পর্যন্ত তাও ঠিক ছিল, কিন্তু চমক ঘটল ঠিক এর পড়ে, যখন সাংবাদিকদের প্রশ্নউত্তরের মুখোমুখি হতেহল তাকে, ঠিক তখন- “ভারতের রাষ্ট্রপতির নাম কী? সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের জবাবে কংগ্রেস প্রার্থী ইবলিনা বললেন, পি.এম মোদী।” প্রাথমিক অবস্থায় মনে হয়েছিল হয়ত প্রথমবার সাংবাদিকদের সামনে পরে, নার্ভাস হয়ে ভুল করে ফেলেছেন এম.এ পাশ ইবলিনা। কিন্তু না, ফের একই প্রশ্ন করা হলেও উত্তর কিন্তু বদলাল না। বার বার একই প্রশ্ন করা হলেও পি.এম মোদীতেই অনড় রইল ইবলিনা, বারবার এক প্রশ্ন করায় মুখ ফস্কে একবার সোনিয়া গন্ধীও বলে ফেলেছিলেন তিনি । 

এরপর যখন তাকে জিজ্ঞাস করা হয় আসামের রাজ্যপাল কে ?? ‘রাজ্যপাল’ কী জিনিস সেটাই বুঝতে পারছিলেন না ইবলিনা। শেষ পর্যন্ত বলেন, আমি আসলে শিলংয়ে লেখাপড়া করেছি, ইংরেজি মিডিয়াম। তাই অসমীয়া প্রশ্ন ঠিকঠাক ধরতে পারছি না । বুঝুন তিনি নাকি নিজের মাতৃভাষায় করা প্রশ্ন বুঝতেই পারছেন না । 

এরপর তাকে আসামের জেলার সংখ্যা জিজ্ঞাস করা হলে, ইবলিনার উত্তর অসমে একটাই জেলা। নাছোড়বান্দা সাংবাদিকদের প্রশ্নে খানিকটা বিরক্ত হয়েই ইংরাজি ও বাংলায় মিলিয়ে ইবলিনা জানান- এতবার বলার কি আছে! অসমে তো জেলা একটাই। সেটা হল ধুবুরি। কংগ্রেসের গর্বের এম.এ পাশ, উপধক্ষা প্রার্থীর এমন উত্তরে অবাক হয়ে যাওয়া সাংবাদিকদের দেখে, আর ঝুঁকি না নিয়ে ইবলিনাকে একা রেখে একে একে পালাতে থাকেন তার সাথে থাকা অন্যান্য মহিলা কংগ্রেসের কর্মীরা । 

তবে তারা পালিয়ে গেলেও বিধানসভার বিরোধী দলনেতা, কংগ্রেসের দেবব্রত শইকিয়াকে পাশে পান ইবলিনা । ইবলিনার সমর্থনে দেবব্রত শইকিয়া বলেন পুঁথিগত জ্ঞানই তো আর সব নয়। তাঁর রাজনৈতিক, সামাজিক, সাম্প্রতিক ঘটনাবলী নিয়ে জ্ঞান থাকলেই হবে । কিন্তু বিধানসভার বিরোধী দলনেতার এই উত্তরের পর বিশেষজ্ঞরা ও সাধারন মানুষের প্রশ্ন তুলেছেন রাষ্ট্রপতি, রাজ্যপাল, জেলা এগুলি কি রাজনৈতিক, সামাজিক, সাম্প্রতিক ঘটনাবলীর জ্ঞানের আওতায় পরে না ?? নাকি নিজেদের গর্বের ফানুস ফুটো হয়ে যাওয়ায় তিনিও পাগলের প্রলাপ বকছেন ?? 

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This is todays COVID data

[covid-data]